বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:২৭ অপরাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
রংপুরে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি প্রশিক্ষণ ব্যুরোর কর্মশালা দরিদ্র, দুস্থ্য ও প্রতিবন্ধী শিশুদের মাঝে খাবার ও শীতবস্ত্র বিতরণ হতাশাগ্রস্ত হয়ে বাবাকে খুন, পুলিশের কাছে ছেলের আত্মসমর্পণ ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে বিশেষ অঙ্গ কেটে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতিকে হত্যা তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্প: মৃতের সংখ্যা ২৩শ ছাড়িয়েছে রংপুরে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস পালিত জাপা চেয়ারম্যান হিসেবে জি এম কাদেরের দায়িত্ব পালনে বাধা নেই মিত্থুকের দল হলো বিএনপি, মিথ্যাচারই তাদের সম্পদ: মির্জা আজম ‘সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত গন আন্দোলন চলবে’ সীমান্তে তারকাঁটারের বেড়া নির্মাণের চেষ্টা বিএসএফের,বিজিবির বাধায় দুই বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা

“উহান ল্যাবেই তৈরি করোনা” বিস্ফোরক মন্তব্য চীনা বিজ্ঞানীর

প্রতিবেদকের নাম:
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

উহানে চিনের সরকারি ল্যাবেই তৈরি নোভেল করোনাভাইরাস! এবং এই সংক্রান্ত সব তথ্যপ্রমাণ তাঁর কাছেই আছে বলে বোমা ফাটালেন চিনা ভাইরোলজিস্ট লি-মেং ইয়ান। এক সময় হংকংয়ের স্কুল অব পাবলিক হেলথে সংক্রামক রোগ নিয়ে গবেষণারত এই তরুণী বিজ্ঞানীর দাবি, প্রাণের ভয়ে সম্প্রতিই তিনি পালিয়ে আমেরিকায় আশ্রয় নিয়েছেন। গত শুক্রবার গোপন কোনও জায়গা থেকে একটি ব্রিটিশ টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইয়ান দাবি করেন, ভয়ঙ্কর সংক্রামক এই ভাইরাস নিয়ে তিনি অনেক আগেই চিনের সেন্টার ফর ডিজ়িজ় কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনকে সতর্ক করেছিলেন। কিন্তু লাভ হয়নি। উল্টে বিশ্বের কাছে বিষয়টা চেপে রাখে বেজিং। বাইরে এ নিয়ে মুখ খুললে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয় তাঁকে।

বেজিংয়ের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ নতুন নয়। হালে কিছুটা সুর নামালেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একটা সময় পর্যন্ত করোনা ছড়ানোর জন্য লাগাতার দুষে গিয়েছেন চিনকে। কখনও বলেছেন, ‘উহান ভাইরাস’,  তো কখনও ‘কুং ফ্লু’। এমনকি মে-র গোড়ায় ট্রাম্প এ-ও দাবি করেন যে, উহানের ল্যাবেই যে করোনাভাইরাসের জন্ম সেই প্রমাণ তিনি নিজে চাক্ষুষ করেছেন। মার্কিন বিদেশসচিব মাইক পম্পেয়োও একই দাবি করেছিলেন। কোভিড-১৯ নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) বা অন্য কোনও দেশকে বেজিং যথাসময়ে সতর্ক করেনি বলেও অভিযোগ ওঠে। যদিও পরে মার্কিন গোয়েন্দারা তাঁদের রিপোর্টে বলেন, বেজিংকে করোনা-সংক্রান্ত তথ্য দেওয়ার গাফিলতি ছিল স্থানীয় উহান প্রশাসনের।

যত দোষ তা-হলে উহানের? চিনা বিজ্ঞানী ইয়ান কিন্তু বলছেন, সরকার নিয়ন্ত্রিত ল্যাবের এই ‘করোনা-কাণ্ডে’ সরাসরি হাত রয়েছে চিনা সেনার। করোনা ছড়ানোর পিছনে উহানের এক পশুবাজারের কথা বরাবর বলে এসেছে চিন। ইয়ানের যদিও দাবি, ‘‘এই ভাইরাস কোনও ভাবেই প্রাকৃতিক নয়। আমি গবেষণা করে যা বুঝেছি, তাতে হয়তো বাদুড় বা ওই জাতীয় কোনও প্রাণীর থেকে ভাইরাল স্ট্রেন নিয়ে তাকে রাসায়নিক ভাবে আরও শক্তিশালী করে তোলা হয়েছে। যাতে তা মানবশরীরে ঢুকে মুহূর্তে বিভাজিত হয়ে অসংখ্য প্রতিলিপি তৈরি করতে পারে।’’ তাঁর আরও দাবি, গোড়ায় ‘ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো ভাইরাসবাহিত রোগ’ বলে কোভিড-১৯ চাপার চেষ্টা করেছিল চিন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!