বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
ওমানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে ২য় রাউন্ডের খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখলো বাংলাদেশ টিকা দেওয়ার জন্য স্কুলের শিক্ষার্থীদের তালিকা করা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশকে একটি অসম্প্রদায়িক রাষ্ট্র উল্লেখ করে ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি বন্ধের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর রংপুরের পীরগঞ্জের হামলায় জড়িতরা কেউ পার পাবে না: তথ্যমন্ত্রী প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এরশাদকে কটুক্তি করার প্রতিবাদে রংপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রংপুরে ফেসবুকে পোস্ট দেয়াকে কেন্দ্র করে সহিংস ঘটনার পোস্টদাতা পরিতোষের স্বীকারোক্তি,কারাগারে প্রেরণ রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দু জেলে পল্লীতে হামলা পূর্বপরিকল্পিত: স্পীকার শিরীন শারমিন পীরগঞ্জে ধর্মান্ধ সন্ত্রাসী গোষ্ঠী এসব হামলা চালিয়েছে: রংপুরে ইনু রংপুরের পীরগঞ্জে ‘ধর্ম অবমাননাকর’ পোস্ট দেওয়া সেই পরিতোষ গ্রেফতার,আইসিটি আইনে মামলা জেলা পর্যায়ে রচনা প্রতিযোগিতায় শিবরাম স্মৃতি প্রি-ক্যাডেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীর প্রথম পুরষ্কার গ্রহণ

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে কোরআন অবমাননা নিয়ে শহরে উত্তেজনা,মণ্ডপে হামলা: বিবিসি

এপ্লাস অনলাইন
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২১

কুমিল্লা নগরীর একটি পূজামণ্ডপে হনুমানের কোলে পবিত্র কুরআন শরীফ রাখার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও বিক্ষুব্ধ জনতার মাঝে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ফাঁকা গুলি ও টিয়ার শেল ছোড়ে। এতে ৫ জনের বেশি আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে ।বুধবার বেলা ১২ টার দিকে নগরীর নানুয়া দীঘির পাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার রাতে নগরীর নানুয়ার দিঘিরপাড়ের একটি দুর্গাপূজার মণ্ডপে হনুমান মূর্তির কোলে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এনিয়ে বুধবার সকাল থেকে বিক্ষুব্ধ মানুষ নানুয়ার দিঘিরপাড়ে জড়ো হয়ে মিছিল করেন।

 

জামণ্ডপ থেকে কোরআন পাওয়ার পর বেশ কয়েকটি পূজামণ্ডপে হামলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সেখানকার পূজা উদযাপন কমিটির সম্পাদক নির্মল পাল।

তিনি বলেন শহরের নানুয়ারদীঘি এলাকার একটি পূজামণ্ডপের প্রতিমায় কোরআন রাখার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর পুলিশ গিয়ে তা সরিয়ে নেয়। কিন্তু এর পর পরই একদল ব্যক্তি বেশ কিছু পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা চালায়।

“পূজা বানচালের জন্য পরিকল্পিতভাবে কোরআন রেখে এ ঘটনা ঘটিয়ে তারাই এখন শহরজুড়ে পূজাবিরোধী বিক্ষোভ করছে। কয়েকটি মণ্ডপে হামলার চেষ্টা হয়েছে কিন্তু পুলিশের বাধায় ভেতরে ঢুকতে না পারলেও গেইট বা সামনের স্থাপনা ভাংচুর করেছে,” বলছিলেন তিনি।

সূত্র জানায়, ওই এলাকায় কয়েক হাজার মানুষ জড়ো হয়ে দুটি মণ্ডপে ভাঙচুর চালিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ টিয়ারশেল ও ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে । এতে প্রায় পাঁচ জন সাধারণ মানুষ আহত হয়।
ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।কুমিল্লা সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কু, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান, জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যবসায়ী বিবিসিকে বলেছেন বেলা এগারটার দিকে হঠাৎ কোরআন অবমাননা হয়েছে, এমন খবর ছড়িয়ে পড়ে শহর জুড়ে।

তিনি বলেন দশটার পর নানুয়ারদীঘির মণ্ডপে কোরআন নজরে পড়লে দ্রুত পুলিশকে জানানো হয় এবং পুলিশ তখনি এসে কোরআনটি সরিয়ে নেয়।

“কিন্তু খবরটি খুব দ্রুত ছড়ানো হয় এবং কয়েকটি মাদ্রাসার লোকজন ছাড়াও স্থানীয় অনেকে প্রতিবাদ করতে শুরু করেন। এক পর্যায়ে সেখান থেকে মণ্ডপ গুলোতে হামলা করা শুরু হলে পুলিশ ব্যবস্থা নেয়”।

এদিকে ঘটনার পরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোরআন অবমাননা করা হয়েছে দাবি করে ব্যাপক প্রচার শুরু হয় এবং অনেকে প্রতিবাদ বিক্ষোভ অনেকে ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচার করেন।

খবর: বিবিসি ও দৈনিক ইনকিলাব

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com