শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৯:০৯ পূর্বাহ্ন

দাবানল’র প্রতিষ্ঠাতা মুক্তিযোদ্ধা  বাটুলের চেহলাম অনুষ্ঠিত

প্রতিবেদকের নাম:
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০
বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা, বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ, সাবেক সংসদ সদস্য, সফল শ্রমিক নেতা ও সাংস্কৃতিক সংগঠক, উত্তরাঞ্চলের সাংবাদিকতার বাতিঘর, সাপ্তাহিক রণাঙ্গন, মহাকাল ও দৈনিক দাবানল’র প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক খন্দকার গোলাম মোস্তফা বাটুল এঁর চেহলাম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১২ অক্টোবর সোমবার  দৈনিক দাবানল পরিবারের আয়োজনে রংপুর নগরীর দক্ষিণ মুলাটোলে চেহলাম অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে চেহলাম অনুষ্ঠানে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, ‘খন্দকার গোলাম মোস্তফা বাটুল ভাই জীবদ্দশায় যেভাবে সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য কাজ করে গেছেন, তা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। ছাত্র আন্দোলন, শ্রমিক আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধের আন্দোলন সংগ্রাম, স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ, সংবাদপত্র প্রকাশনা, সাংবাদিকদের সংগঠিত করার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সমানভাবে অবদান রেখেছেন। তার মতো আপোষহীন ও ত্যাগী নেতা রাজনীতিতে খুবই কম রয়েছে। এরশাদ সাহেব কারাবন্দি থাকা অবস্থায় বাটুল ভাই জাতীয় পার্টিকে আগলে রেখেছিলেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দলকে সংগঠিত করছেন। তাঁর মতো নেতা, সাংবাদিক, সংগঠক সহসাই তৈরি হবে না। তাঁর তুলনা শুধুই তিনি।’
নীলফামারী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সংগ্রাম, শ্রমিক আন্দোলন, উত্তরাঞ্চলের সাংবাদিকতা নিয়ে ইতিহাস রচনা করতে গেলে গোলাম মোস্তফা বাটুল এঁর নাম আসবেই। তাকে বাদ দিয়ে এই অঞ্চলের মানুষের ঊনবিংশ শতাব্দীর আন্দোলন সংগ্রামের ইতিহাস কোনো দিনও লেখা সম্ভব নয়। বিশেষ করে মুক্তিযুদ্ধের সময় তাঁর সম্পাদিত সাপ্তাহিক রণাঙ্গন পত্রিকাটি তো এদেশের মুক্তিকামী মানুষের জন্য এক বিরল বার্তা ছিল। এই পত্রিকা ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রেরণা। সমানভাবে তিনি নিজেই নিজেকে অদ্বিতীয় মেলে ধরে এই অঞ্চলের মানুষকে ঋণী করে গেছেন।
চেহলাম উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রংপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র মাহমুদুর রহমান টিটু, রংপুর মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিজু, রংপুর প্রেসক্লাব সভাপতি রশীদ বাবু, বাংলার চোখ’র প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান তানবীর হোসেন আশরাফীসহ প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ক্লাব, রিপোর্টার্স ইউনিটি, সিটি প্রেসক্লাব, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাব, তাজহাট মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন রংপুর, তাজহাট থানা প্রেসক্লাব, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট-টিসিএ, সাংবাদিক ইউনিয়ন, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম, তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটির নেতৃবৃন্দ ও প্রতিনিধিরাসহ রংপুরে বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক, অনলাইন মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিক ও দৈনিক দাবানল’র বিভিন্ন জেলা উপজেলার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও রংপুরের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
চেহলাম অনুষ্ঠানের পূর্বে খন্দকার গোলাম মোস্তফা বাটুল এর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে কোরআন তেলাওয়াত ও দোয়া মোনাজাত করা হয়। এর আগে মরহুমের ছোট ছেলে ও দৈনিক দাবানল এর বর্তমান সম্পাদক খন্দকার মোস্তফা সরওয়ার অনু মুন্সিপাড়ায় কবর জিয়ারত করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন-দাবানল এর বার্তা ও পরিকল্পনা সম্পাদক জি.এম জয়, দৈনিক দাবানল এর শিশুভুবন এর বিভাগীয় সম্পাদক ও প্রধান প্রতিবেদক ফরহাদুজ্জামান ফারুক, তারাগঞ্জ সংবাদদাতা আরিফ শেখ প্রমুখ।
প্রসঙ্গত, গত ৩ সেপ্টেম্বর রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান খন্দকার গোলাম মোস্তফা বাটুল। তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের মুক্তাঞ্চল লালমনিরহাটের পাটগ্রাম থেকে সাপ্তাহিক রণাঙ্গন পত্রিকাটি প্রকাশ করেছিলেন। মুস্তফা করিম ছদ্মনামে পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন খন্দকার গোলাম মোস্তফা বাটুল। তার সম্পাদিত সাপ্তাহিক রণাঙ্গন পত্রিকাটিতে “ডিসেম্বরে বাঙলা মুক্ত” শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!