বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৫০ পূর্বাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে পঞ্চগড়ের নৌকাডুবির খবর পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি ট্রাজেডি: অর্ধশত মরদেহ উদ্ধার বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন : বেরোবি উপাচার্য স্বজনদের আহাজারিতে ভারি করতোয়ার পাড় পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: দিনাজপুরের পুনর্ভব নদীতে ভেসে এলো ৮ জনের লাশ করতোয়ার পাড়ে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি, মৃত্যু বেড়ে ৩৯ পঞ্চগড়ে মন্দিরে যাওয়ার পথে নৌকাডুবিতে শিশুসহ ২৪ জনের মৃত্যু হিজাব ইস্যুতে উত্তাল ইরান: নারীসহ ৭০০ বিক্ষোভকারী গ্রেফতার, নিহত ৩৫ শারদীয় দুর্গাপূজা: হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বেড়েছে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য, বেরোবি শিক্ষার্থী আটক

ফিরেদেখা ২০২১ এপ্লাস: রেকর্ড উৎপাদনের পরও খাদ্যপণ্যের দাম নিয়ে বছরজুড়ে অস্বস্তি

এপ্লাস অনলাইন
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১

বছরজুড়ে বেশ কয়েকটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেখেছে বাংলাদেশ। এতে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে কৃষিখাত। তবে খাদ্য উৎপাদনে কোনো প্রভাব ফেলেনি। বরং উৎপাদন আগের তুলনায় বেড়েছে। তারপরও যোগানে পড়েছে টান। এতে হু হু করে বেড়েছে খাদ্যপণ্যের দাম। চালের দাম পৌঁছেছে সর্বোচ্চ পর্যায়ে। সরকারের সংশ্লিষ্টরা যে তথ্য দিয়েছেন তাতে বিভিন্ন সময় দেখা গেছে গরমিল। রেকর্ড উৎপাদনের পরও বছরের পুরো সময়জুড়ে খাদ্যপণ্যের বাজারে গিয়ে নাকানি-চুবানি খেয়েছে সাধারণ মানুষ।

 

পরিবারের খাবার যোগাতে বেশি ভুগেছে দরিদ্ররা। স্বল্পমূল্যে খাবারের জন্য হাহাকার ছিল অধিকাংশ সময়। ন্যায্যমূল্যে খাদ্য পেতে মানুষ দীর্ঘ লাইন ধরেছে টিসিবির ট্রাকের সামনে।

 

সরকারের তথ্য বলছে, এ বছর বোরো ধান উৎপাদন হয়েছে ২ কোটি টনের বেশি, যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। একই সময়ে মোট চাল উৎপাদিত হয়েছে ৩ কোটি ৮৬ লাখ টন, গম ১২ লাখ টন, ভুট্টা প্রায় ৫৭ লাখ টন, আলু ১ কোটি ৬ লাখ টন, শাকসবজি ১ কোটি ৯৭ লাখ টন, পেঁয়াজ ৩৩ লাখ টন, তেল জাতীয় ফসল ১২ লাখ টন ও ডালজাতীয় ফসল ৯ লাখ টন।

 

এর মধ্যে সবগুলো খাদ্যশস্যের উৎপাদন বিগত বছরের তুলনায় বেশি। সবমিলে দেশের এ বছর মোট খাদ্যশস্যের উৎপাদন দাঁড়িয়েছিল ৪ কোটি ৫৩ লাখ টনে। উৎপাদন বেড়েছে সার্বিকভাবে গড়ে ৩ শতাংশ হারে। এমনকী আলু, মাছ, মাংস ও ডিমের উৎপাদনও ছিল উদ্বৃত্ত। তারপরও সারা বছর ক্রমাগত বেড়েছে পণ্যের দাম।

 

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) দেওয়া তথ্য বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত এক বছরের ব্যবধানে চালের দাম বেড়েছে প্রায় ৬ শতাংশ পর্যন্ত। পাশাপাশি আটা ও ময়দার ২৪ থেকে ৩৬ শতাংশ, সয়াবিন তেলের দাম ৪৯ শতাংশ, পামের ৫০ শতাংশ, ডাল ২৭ শতাংশ এবং পেঁয়াজের দাম ৪১ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে।

 

টিসিবি বছরব্যাপী বেশকিছু খাদ্যপণ্যের দামের হিসাব রাখে। বছর শেষে সংস্থাটির তথ্য বিশ্লেষণে আরও দেখা গেছে, প্রায় ৩৪ ধরনের খাদ্যপণ্যের মধ্যে বছরের ব্যবধানে দাম কমেছে মাত্র ৮টির। বেড়েছে বাকি সবগুলোরই। দাম বাড়ার তালিকায় রয়েছে অধিক নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যগুলো। কমার তালিকায় সেসব পণ্য রয়েছে যেগুলো তুলনামূলক কম প্রয়োজনীয়। যেমন লবঙ্গ, এলাচ, তেজপাতা।

 

ফলে ২০২১ সালের সারা বছরজুড়ে মূল্যবৃদ্ধির প্রবণতায় কেটেছে দেশ। এতে করোনায় বিপর্যস্ত মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। এ বছরেই অনেকে চাকরি হারিয়েছেন। আবার চাকরি থাকলেও বেতন কমেছে অনেকের। ভালো ছিলেন না ব্যবসায়ীরাও।

 

আবার আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে যেসব পণ্যের মূল্য ওঠানামা করে সেগুলোর পরিস্থিতিও খারাপ হয়েছে বহুগুণ। এতে ভোগান্তি হয়েছে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের।

 

এ বছর যখন চালের দাম বাড়তে শুরু করে ওই সময় কৃষি মন্ত্রণালয়ের চাল উৎপাদনের তথ্য নিয়ে এ পণ্য আমদানির সিদ্ধান্ত গ্রহণে দ্বিধান্বিত হয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। সঠিক পরিকল্পনা করতে পারেনি তারা। ফলে চালের বাজারে বড় প্রভাব পড়েছে- এমন কথা খোদ খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের বক্তব্যেও উঠে এসেছে কয়েক দফা।

 

আবার তেল, চিনি, পেঁয়াজসহ অন্যান্য পণ্যের বাজার পরিস্থিতি নিয়ে জরুরি বৈঠকেও তথ্য বিভ্রাটের বিষয়টি সামনে আসে। তখন এসব নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সঠিক চাহিদা ও দেশীয় উৎপাদন নির্ধারণ সম্ভব হয়নি। ফলে ধারণানির্ভর তথ্যের ওপর নেওয়া হয়েছে আমদানি শুল্ক প্রত্যাহারের মতো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত। ওই সময়ও খাদ্যমন্ত্রী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘কোনো পণ্যের সঠিক তথ্য নেই। উৎপাদনের সঠিক তথ্য না থাকলে বাজার নিয়ন্ত্রণ ও ব্যবস্থাপনা সম্ভব নয়।’

 

অন্যদিকে বছরজুড়ে এবার নানামুখী ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার, নানামুখী কৌশলে রোগবালাই দমন, কৃত্রিম উপায়ে শাক-সবজি চাষ, ছাদকৃষির প্রসার ছিল আলোচনার বিষয়। কৃষিক্ষেত্রে এ বছর নানা ধরনের উদ্ভাবন ও নতুন জাত তৈরি করেছেন কৃষিবিজ্ঞানীরা। অনেক উদ্ভাবনের মধ্যে শেষ এ মাসে দেশে প্রথমবারের মতো লবণ ও বন্যাসহিষ্ণু ধানের পূর্ণাঙ্গ জীবনরহস্য বা জিনোম সিকোয়েন্স উন্মোচন করে সাড়া ফেলেছেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) ও বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিনা) একদল গবেষক।

খবর: জাগো নিউজ

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!