সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:০২ অপরাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
পঞ্চগড়ে মন্দিরে যাওয়ার পথে নৌকাডুবিতে শিশুসহ ২৪ জনের মৃত্যু হিজাব ইস্যুতে উত্তাল ইরান: নারীসহ ৭০০ বিক্ষোভকারী গ্রেফতার, নিহত ৩৫ শারদীয় দুর্গাপূজা: হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বেড়েছে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য, বেরোবি শিক্ষার্থী আটক আগামী পহেলা ডিসেম্বর বিভাগীয় লেখক পরিষদ রংপুরের এক যুগ পূতি নগরজুড়ে চ্যাম্পিয়নদের ছাদ খোলা বাসে বিজয় শোভাযাত্রা খোলা বাসে বিলবোর্ড মাথায় লেগে আহত ফুটবলার ঋতুপর্ণার মাথায় দুই সেলাই এই ট্রফি আমাদের দেশের জনগণের জন্য রংপুরে জাপানি নাগরিক কুনিও হোশি হত্যা: ৪ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড বহাল দিনাজপুর বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার চার বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিত

বৃষ্টির আশায় রংপুরে ইস্তিসকারের নামাজ আদায়, মোনাজাতে মুসল্লিদের কান্নার রোল

রাজিমুজ্জামান হৃদয়
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৯ জুলাই, ২০২২

উত্তরাঞ্চলে অব্যাহত রয়েছে মৃদু তাপ প্রবাহ এবং সারা দেশে চলছে অসহনশীল গরম । এমন পরিস্থিতিতে রংপুরে বৃষ্টির জন্য মহান আল্লাহর রমহত কামনা করে দুই রাকাত ই¯িতসকার নামাজ আদায় করে বিশেষ মোনাজাত করেছেন মুসল্লিরা।

 

মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় রংপুরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দান কালেক্টরেট ঈদগাহে এ ইসতিশকার নামাজ ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।সম্মিলিত ইমাম পরিষদ রংপুর জেলা এ ইসতিশকার নামাজ ও মোনাজাতের আয়োজন করে। নামাজ ও মোনাজাত পরিচালনা করেন সংগঠনের সভাপতি ও কেরামতিয়া মসজিদের ইমাম মাওলানা বায়েজিদ হোসাইন ।

 

 

নামাজ শেষে মোনাজাতে ঈদগাহ মাঠ মুসল্লিদের কান্নায় প্রকম্পিত হয় । হু হু করে কাদতে শুরু করেন সকল মুসল্লি। মহান আল্লাহর দরবারে হাত তুলে ছয় মিনিটের এই মোনাজাতে সকলের কান্নার শব্দে চারদিকের আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে ওঠে।

 

নামাজে অংশ নিয়ে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র মাহমুদুর রহমান টিটু সাংবাদিকদের জানান, নামাজ পরে আল্লাহর কাছ থেকে গোনাহ থেকে পানা চাইলাম সেই সাথে তিনি যেনো রহমতের বৃষ্টি দান করে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যায় সেই দোয়া করেছি। আমাদের বিশ্বাস এখানে নামাজ আদায় করা কারো দোয়া নিশ্চই আল্লাহ কবুল করবে এবং তার মাধ্যমে রহমতের বৃষ্টি রংপুরসহ সারা দেশে হবে।

 

মোনাজাত পরিচালনা করা মাওলানা বায়েজিদ হোসাইন জানান, অনাবৃষ্টির সময় মহানবী (স) তার সাহাবীদের নিয়ে এই বিশেষ নামাজ,খুতবা ও দোয়া করেছিলন । আমরা সেই ধারাবাহিকতায় আজকে আল্লাহর দরবারে বৃষ্টির জন্য ফরিয়াত জানিয়েছি।বুধবার এবং বৃহস্পতিবারও এ মাঠেই একই সময়ে ইস্তিকার নামাজ আদায় করা হবে বলে জানান তিনি।

 

 

 

নামাজে অংশগ্রহণকারী কয়েকজন মুসল্লি জানায়, এই সময়ে বৃষ্টিতে জমিসহ চারদিকে পানি থৈ থৈ করে থাকে। কিন্তু এ বছর সম্পূর্ণ বিপরীত অবস্থা দেখা দিয়েছে। আষাঢ় মাস শেষ হলেও আকাশের তেমন বৃষ্টি নেই। তাই মহান আল্লাহর দরবারে দুই রাকাত নামাজ আদায় করে দোয়া করেছি। মহান আল্লাহ যেন এই পরিস্থিতির অবসান ঘটান।
বৃষ্টি কামনা করে ইসতিশকার নামাজ ও বিশেষ মোনাজাতে অন্তত তিন থেকে চার শতাধিক মুসল্লি অংশগ্রহণ করে।

 

স্থানীয় আবহাওয়া অফিস বলছে, চলতি মাসে বৃষ্টিপাত হয়েছে মাত্র ১৭ মিলিমিটার। তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে সর্বোচ্চ ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সর্বনিম্ন ২৮.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

 

এদিকে রংপুর অঞ্চল কৃষি নির্ভর এলাকা। দীর্ঘ দিন ধরে অনাবৃষ্টি অব্যাহত থাকায় ব্যাহত হচ্ছে কৃষিকাজ। পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতের অভাবে আমনের আবাদ নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিনপার করছেন কৃষকরা। বৃষ্টির অভাবে বর্ষা মৌসুমেও প্রচন্ড খরায় অনেক আবাদি জমি ফেটে গেছে। প্রচন্ড গরম ও খরতাপে কৃষকসহ সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস ওঠার উপক্রম হয়েছে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!