বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে পঞ্চগড়ের নৌকাডুবির খবর পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি ট্রাজেডি: অর্ধশত মরদেহ উদ্ধার বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন : বেরোবি উপাচার্য স্বজনদের আহাজারিতে ভারি করতোয়ার পাড় পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: দিনাজপুরের পুনর্ভব নদীতে ভেসে এলো ৮ জনের লাশ করতোয়ার পাড়ে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি, মৃত্যু বেড়ে ৩৯ পঞ্চগড়ে মন্দিরে যাওয়ার পথে নৌকাডুবিতে শিশুসহ ২৪ জনের মৃত্যু হিজাব ইস্যুতে উত্তাল ইরান: নারীসহ ৭০০ বিক্ষোভকারী গ্রেফতার, নিহত ৩৫ শারদীয় দুর্গাপূজা: হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বেড়েছে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য, বেরোবি শিক্ষার্থী আটক

বেরোবিতে বিভিন্ন স্থাপত্য ও নিদর্শনের নমুনা মডেল প্রদর্শনী

বেরোবি প্রতিবেদক ও এপ্লাস অনলাইন
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২২
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি)  ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের একদল শিক্ষার্থীরা হাতের তৈরি প্রাচীন, মধ্যযুগ,সুলতানি ও মোঘল আমলের বিভিন্ন স্থাপত্য ও নিদর্শনের নমুনা মডেল প্রদর্শনী করেছেন। রবিবার সকালে কলা অনুষদের নিচে শেখ রাসেল মিডিয়া চত্বর সংলগ্ন মাঠে দুই দিন ব্যাপী এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রব্বানী।
জানা যায়, ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের ‘প্রত্নতত্ত্ব’কোর্সের এসাইনমেন্টের অংশ হিসেবে দুইটি ব্যাচের  শিক্ষার্থীরা কোর্সের শিক্ষক প্রভাষক সোহাগ আলীর তত্বাবধানে গ্রুপ তৈরী করে ৬ দিন ব্যাপী ককশীট, পেপারের মন্ড ও মাটি দিয়ে এসব প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন তৈরী করেন।শিক্ষার্থীরা জানায়, পুথিগত বিদ্যার বাইরে গিয়ে এসব নিদর্শন হাতে তৈরি করা এক রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা। প্রথমবারের মতো এই অভিজ্ঞতা আমাদের জ্ঞানকে সমৃদ্ধ করবে। পাশাপাশি শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষের এসব ঐতিহাসিক স্থান দর্শনের প্রতি আগ্রহ বাড়বে। মানুষ ইতিহাস সম্পর্কেও সচেতন হবে।

বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক গোলাম রব্বানী বলেন, আজকের এই কাজের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা ব্যবহারিক বিষয় সম্পর্কে জানতে পারছে। সশরীরে এসব জায়গায় না গিয়েও শিক্ষার্থীদের এমন কাজ সত্যিই প্রশংসনীয়।ভবিষ্যতে শিক্ষার্থীদের নিয়ে এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন অব্যাহত থাকবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করে অন্যান্য শিক্ষকদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।এ ধরণের উদ্যোগ ভবিষ্যতে অব্যাহত রাখার পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি।

ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের  শিক্ষক সোহাগ আলী বলেন, প্রত্নচর্চায় নিয়োজিত এসব শিক্ষার্থীরা প্রত্ননিদর্শনের অনুসন্ধান, খনন, সংরক্ষণ, প্রদর্শন এবং গবেষণার মাধ্যমে পূর্বপুরুষের জীবনযাত্রা ও সংস্কৃতির চালচিত্র তুলে ধরে ইতিহাস বিনির্মাণ ও সত্যায়ন করে থাকেন। এ শাস্ত্রের চর্চা ইতিহাসের সত্যতা দেয়, প্রত্নতত্ত্বের অধ্যয়ন একজন শিক্ষানবিশকে তার চারপাশের বিষয়ে সচেতন হতে এবং একজন ভাল পর্যবেক্ষক হতে সাহায্য করে। এ চর্চা নিজের অতীত, নিজ পরিচয় সম্পর্কে আরও গভীরে গিয়ে জানতে সহায়তা করে।ফলে শিক্ষার্থীরা তাত্ত্বিক ও প্রায়োগিক উভয় শিক্ষার হাতেখড়ি পান।

এই প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শন দেখার জন্য ভিড় করে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের শিক্ষার্থীবৃন্দ।এসময় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি পোমেল বড়ুয়া,সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান শামীম সহ বিভিন্ন বিভাগের  শিক্ষার্থীরা ঐতিহাসিক স্থাপত্যগুলো ঘুরে ঘুরে দেখেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!