বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৫১ অপরাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
সীমান্তে তারকাঁটারের বেড়া নির্মাণের চেষ্টা বিএসএফের,বিজিবির বাধায় দুই বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা ‘২৭ বছরের ডিউটিকালে রংপুরে আমি তিনবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গাড়িতে বহন করেছিলাম’ ফেসবুক পোস্টে হা হা রিঅ্যাক্ট দেওয়ায় কলেজ ক্যাম্পাসে বন্ধুকে ছুরিকাঘাত শপথ নিলেন নব নির্বাচিত রংপুর সিটি মেয়র মোস্তফা ও কাউন্সিলররা পাকিস্তানে মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ৩২ প্রকল্প পরিচালকের উপর হামলার প্রতিবাদে এলজিইডির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানববন্ধন রাজশাহীর জনসভায় নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী রংপুরের প্রবীণ আ.লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা ইলিয়াছ আহমেদ না ফেরার দেশে মওলা কর্নসালটিং এন্ড ডিজাইন শিক্ষার্থীদের সনদ বিতরণ রংপুরে প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় মেয়ের বাবাকে হত্যা করেছে প্রেমিক

রংপুরের মাদাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে রোগীদের গোপনাঙ্গে গুঁড়া দিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন!

প্রতিবেদকের নাম:
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২১

রোগীদের অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগে রংপুরে মেডিকেল পূর্বগেট এলাকায় প্রধান মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্র ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেছে রোগীদের স্বজন ও স্থানীয়রা। এসময় পুশিকে খবর দেওয়া হলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায় । পুলিশ কেন্দ্র বন্ধ করলেও অভিযুক্তরা শটকে পড়েছে ।

 

লোহার পাইপ দিয়ে এক রোগীকে মারধর করার খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঐ রোগীর কয়েকজন স্বজন প্রধান মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্র নামে এই প্রতিষ্ঠানে যায়। এসময় প্রায় সব রোগীর চিকিৎসার নামে নিজেদের উপর চলা শারিরিক নির্যাতনের ফলে সৃষ্ঠি দেখা ক্ষত দেখিয়ে উদ্ধারের আকুতি জানায়। রোগীরা লৌমহর্ষক বর্ণনা দিতে জানায় লোহার পাইপ দিয়ে মারপিট করায় অনেকের পিঠে কোমর হাটুতে রক্তাক্ত জখম জানায় । নির্যাতনের সময় অনেককে উলঙ্গ করে ও চোখে মরিচের গুড়া দেওয়ার অভিযোগ করে তারা। এমনকি কয়েকজন রোগী মলমূত্র জোর করে খাওয়ানোর অভিযোগ করে।

চিকিৎসার নামে চলা লৌমহর্ষক নির্যাতনের খবর পেয়ে অন্যান্য রোগীর স্বজনরা রাতেই ছুটে এসে কেন্দ্রের অভিযুক্ত লোকজনের উপর চড়াও হয়। একিকে পুলি গিয়ে শারিরিক নির্যাতনের আলামত পাওয়ায় রোগীদের সেখান থেকে উদ্ধার করে। উপস্থিত স্বজনদের কাছে তাদের হস্তান্তর করে। ঘটনায় অভিযুক্তরা পালিয়েছে

 

সেখানে মোট ২১জনকে গাদাগাদি করে ছোট্ট দুটি ঘরে ফ্লোরের উপর রাখা হয়েছিল। থাকা,রান্নাঘরসহ সম্পূর্ণ কেন্দ্রে অস্থাস্থ্যকর পরিবেশ পরিলক্ষিত হয়।
রংপুর মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কায়সার জানান, পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরকে দায়িত্ব দেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!