সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৩১ অপরাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
পঞ্চগড়ে মন্দিরে যাওয়ার পথে নৌকাডুবিতে শিশুসহ ২৪ জনের মৃত্যু হিজাব ইস্যুতে উত্তাল ইরান: নারীসহ ৭০০ বিক্ষোভকারী গ্রেফতার, নিহত ৩৫ শারদীয় দুর্গাপূজা: হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বেড়েছে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য, বেরোবি শিক্ষার্থী আটক আগামী পহেলা ডিসেম্বর বিভাগীয় লেখক পরিষদ রংপুরের এক যুগ পূতি নগরজুড়ে চ্যাম্পিয়নদের ছাদ খোলা বাসে বিজয় শোভাযাত্রা খোলা বাসে বিলবোর্ড মাথায় লেগে আহত ফুটবলার ঋতুপর্ণার মাথায় দুই সেলাই এই ট্রফি আমাদের দেশের জনগণের জন্য রংপুরে জাপানি নাগরিক কুনিও হোশি হত্যা: ৪ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড বহাল দিনাজপুর বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার চার বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিত

হাসপাতালে বুকফাটা আর্তনাদ,চট্টগ্রামের সব চিকিৎসকের ছুটি বাতিল

এপ্লাস অনলাইন
  • আপডেট সময় : রবিবার, ৫ জুন, ২০২২

 

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠেছে। প্রায়শই শোনা যাচ্ছে বুকফাটা কান্না আর স্বজন হারানোর আর্তনাদ।

আহত-নিহতদের স্বজনদের কারও চোখ দিয়ে অঝরে পানি ঝরলেও বের হচ্ছে না শব্দ। কোথাও থেকে আবার ভেসে আসছে গোঙানির আওয়াজ! কেউ চোখের পানি মুছতে মুছতে আবার কেউ বুকফাটা কান্নার রোল তুলেছেন।

এদিকে হাসপাতালে পোড়া রোগী বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসা দিতে হিমশিম অবস্থা। অনেকটাই বিপর্যস্ত এই হাসপাতাল। আহতদের চিকিৎসা দিতে চট্টগ্রামের সব চিকিৎসকের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

হাসপাতালের বারান্দায় দাঁড়িয়ে কাঁদছিলেন আমিন উদ্দিন। তাকে সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করছেন পাশে থাকা তার স্বজনরা।

এসময় এই প্রতিবেদককে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আমিন উদ্দিন জানান, তার ভাগিনা মো. হাবিবুর রহমান (২৩) মারা গেছেন সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণে। দুর্ঘটনার সময় হাবিব ডিপোতে ছিলেন। পরে তার লাশ উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

তিনি আরও বলেন, হাবিবুর রহমান বিএম কনটেইনার ডিপোর ইক্যুইপমেন্ট অপারেটর হিসেবে কর্মরত ছিল। ভোলা সদর থানাধীন বাংলাবাজার এলাকার শিহাব উদ্দিনের ছেলে। আট বছর ধরে এখানে চাকরি করছিল হাবিবুর।

তার মতো অনেকে ছেলে হারিয়ে, কেউবা ভাই হারিয়ে আহাজারি করছেন।

চট্টগ্রাম হাসপাতারের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী বলেন, তিনি চিকিৎসকদের দ্রুত হাসপাতালে যোগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

শনিবার (০৪ জুন) রাত ১১টার দিকে সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারী এলাকার বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। কিছু বুঝে ওঠার আগে বিস্ফোরণে সব লন্ডভন্ড হয়ে যায়।

ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের ২৪টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। এছাড়া নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর ও কুমিল্লাসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলা থেকেও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ করছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় ২৪ একর জায়গাজুড়ে বিস্তৃত এ কনটেইনার ডিপো। মূলত এখান থেকে বিভিন্ন রফতানি পণ্য বিদেশে পাঠানো হয়।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!