মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৩৯ অপরাহ্ন
নিউজ ফ্লাশ
আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে পঞ্চগড়ের নৌকাডুবির খবর পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি ট্রাজেডি: অর্ধশত মরদেহ উদ্ধার বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন : বেরোবি উপাচার্য স্বজনদের আহাজারিতে ভারি করতোয়ার পাড় পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: দিনাজপুরের পুনর্ভব নদীতে ভেসে এলো ৮ জনের লাশ করতোয়ার পাড়ে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি, মৃত্যু বেড়ে ৩৯ পঞ্চগড়ে মন্দিরে যাওয়ার পথে নৌকাডুবিতে শিশুসহ ২৪ জনের মৃত্যু হিজাব ইস্যুতে উত্তাল ইরান: নারীসহ ৭০০ বিক্ষোভকারী গ্রেফতার, নিহত ৩৫ শারদীয় দুর্গাপূজা: হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বেড়েছে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য, বেরোবি শিক্ষার্থী আটক

হাড় কাঁপনো শীতে বিপর্যস্ত রংপুরের জনজীবন,অনুভূত হচ্ছে কনকনে ঠাণ্ডা

রাজিমুজ্জামান হৃদয়
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২২

টানা চারদিন থেকে বইছে হিমেল হাওয়া। মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) ভোর থেকে তিস্তা-ঘাঘট তীর ষেঁষা রংপুর কুয়াশাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে। ভোর থেকেই সব সড়ক, মহাসড়ক, নদী ও মাঠ-ঘাট ঘন কুয়াশায় ঢাকা।বৃষ্টির ফোঁটার মতো শিশির পড়ে ভেজা পথঘাট। হিমেল হাওয়ার সঙ্গে কনকনে শীত অনুভূত হচ্ছে ।

 

এমন পরিস্থিতিতে জীবিকার তাগিদে বের হওয়া শ্রমজীবী মানুষেরা পড়েছেন বিপাকে। তবে স্বাভাবিক দিনের তুলনায় শ্রমজীবী মানুষের সংখ্যা অনেক কম । আরা যারা কাজের সন্ধানে বের হয়েছেন অনেকেই কাঙ্খিত কাজ পেলেও তীব্র শীতের কারণে তা সময় মতো করতে পারছেন না ।

 

 

 

সকাল ৯টা পর্যন্ত রংপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা এবারের শীত মৌসুমে জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। সোমবার সকাল থেকে বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ,যা অব্যাহত থাকবে বলে স্থানীয় আবহাওয়া অফিস থেকে জানানো হয়েছে।

 

রংপুর আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াববিদ মোস্তাফিজার রহমান এপ্লাস নিউজকে বলেন, সোমবার ১২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ছিল। হিমেল বাতাস আর ঘন কুয়াশা শীতের তীব্রতাকে বহুগুণে বাড়িয়ে দিয়েছে। একইসঙ্গে জানুয়ারিতে তিনটি শৈত্যপ্রবাহ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

কুয়াশাচ্ছন্ন আকাশে দুপুরের পর অল্প সময়ের জন্য সুর্যের দেখা মিললেও তাতে থাকছে না উষ্ণতা। ঠাণ্ডায় শিশু ও বৃদ্ধদের কষ্ট চরমে পৌঁছেছে।

 

ভোর থেকে কুয়াশার কারণে মহাসড়কে বাস-ট্রাকসহ সকল যানবাহনের চালকদের হেড লাইট জ্বালিয়ে সতর্ক অবস্থানে গাড়ি চালাতে দেখা গেছে। রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের সাতমাথা এলাকায় কথা হয় ট্রাক চাল আজিজুল হকের সাথে। তিনি বলেন ঘন কুয়াশায় গাড়ি চালাতে খুব বেগ পেতে হচ্ছে,দূর্ঘটনার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

নগরীরর এলাকাগুলো কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়েছে । রিকশা,ভ্যান,ইজি বাইক চালকরা পড়েছেন বিপাকে। দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে তারা স্বাভাবিক দিনের মতো যাত্রি পাচ্ছেন না। রিকশা চালক নাজিম হোসেন বলেন এতো কুয়াশা যে প্যাডেল মারতে অসুবিধা হচ্ছে। সাথে শির শির বাতাস,যাত্রীও আগের মতো নাই।

 

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কর্মস্থল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উদ্দেশে বের হওয়া কর্মজীবী মানুষ ও শিক্ষার্থী অভিভাবকদের দেখা গেছে। তাদের কষ্ট বেড়েছে সড়কে নিত্য চলাচলের বাহন ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা কম থাকায়। কোথাও কোথাও তাদের গুনতে হয়েছে বাড়তি ভাড়া।

 

কুয়াশায় মোড়া শীতের সকালে গ্রামে দেখা মিলছে অপরুপ সৌন্দর্যমন্ডিত দৃশ্যের। নগরী থেকে কিছুটা দূরে পূর্ব খাসবাগ সবুজপাড়া এলাকায় গাছগাছালি ভরা সবুজ-শ্যামল প্রকৃতিক কুয়াশাচ্ছন্ন। শীতের এ তীব্রতা উপেক্ষা করে কৃষকরা নেমেছেন জমিতে ।

 

এদিকে উত্তরাঞ্চলের অনেক মানুষ শীতজনিত নানা রোগের চিকিৎসার নিতে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে আসছেন। শীতের কবল থেকে রক্ষা পেতে খড় জ্বালিয়ে আগুন পোহাতে রংপুর অঞ্চলে এখন পর্যন্ত শিশু ও বৃদ্ধসহ অন্তত ২০ জন দগ্ধ হয়েছেন। এর মধ্যে ১৭ জন গুরুতর অবস্থায় রমেকের বার্ন ইউনিটে ভর্তি হয়েছেন।

 

জেলা প্রশাসক আসিব আহসান জানান, জেলায় এবারের শীতে ছিন্নমূল মানুষদের যাতে কষ্ট পেতে না হয় সেজন্য ৫২ হাজার ৬০০ কম্বল দেওয়া হয়েছে এবং আরো ১ কোটি ১০ লাখ ৯৩ হাজার টাকার শীতবস্ত্রসহ কম্বল ক্রয় করে তা উপজেলা পর্যায়ে ইউএনওসহ সিটি করর্পোরেশন, পৌরসভা, ইনিয়নে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে বিতরণ চলছে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

এ প্লাস ডিজিকম সার্ভিস

© All rights reserved © 2020 Aplusnews.Live
Design & Development BY Hostitbd.Com

অনুমতি ছাড়া নিউজ কপি দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করা যাবে না!!